টঙ্গী-চান্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার জট - Amader Bangladesh

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেড়েছে যানবাহন এবং ঘরমুখো মানুষের চাপ। করোনাভাইরাসের ভয়, পথের ভোগান্তি উপেক্ষা করে যে যেভাবে পারছেন, ছুটছেন গ্রামের দিকে। গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় টঙ্গী থেকে চান্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কে যানবাহনের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে। সৃষ্টি হয়েছে থেমে থেমে যানজট। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন ঘরমুখো মানুষ।

শিল্প অধ্যুষিত গাজীপুরে সকাল থেকে কারখানা শ্রমিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ঈদযাত্রায় বাড়ি ফিরতে মহাসড়ক এসে দাঁড়িয়েছেন। ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেড়েছে যানবাহন। জট লেগেছে সড়কে। অনেকেই রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা গাড়ির অপেক্ষা করছেন। ঘরমুখো যাত্রীদের অভিযোগ, নির্দিষ্ট সময়ে গাড়ি পাচ্ছেন না তারা। এ ছাড়া দূরপাল্লার বাস না চলাচল করায় বাড়তি ভাড়া গুণতে হচ্ছে তাদের।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বিআরটি প্রকল্পে কাজ চলমান থাকায় বৃষ্টির পানি জমে পুরো রাস্তা কর্দমাক্তসহ ছোট বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এতে এই সড়কে স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারছে না গাড়ি। এ ছাড়া বিভিন্ন রুটের গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় সকাল থেকেই ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক টঙ্গী থেকে চান্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কে থেমে থেমে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। দুপুরের পর অন্যান্য পোশাক কারখানা একযোগে ছুটি হলে গাড়ির চাপ আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

ট্রাফিক পুলিশের এটিএসআই সাইফুল ইসলাম জানান, যানজট নিরসন, অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা রোধ ও স্বাস্থ্যবিধি তদারকিতে বিভিন্ন পয়েন্টে কাজ করছে পুলিশ।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাভেদ মাসুদ বলেছেন, সড়কে যতক্ষণ যাত্রী চলাচল করতে, পুলিশ তার দায়িত্ব পালন করবে।